মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভাতা কার্যক্রম

বাংলাদেশে বয়স্ক দুঃস্থ ও অসহায় পুরুষ/মহিলাদের সামাজিক অবস্থান ও মর্যাদা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকার হতে নির্বাচন করে প্রতি মাসে যে অর্থ প্রদান করে সেটাই মূলত বয়স্ক ভাতা।দেশের সব উপজেলার গ্রামীণ ইউনিয়নে প্রতিটি ওয়ার্ডের সবচেয়ে বয়স্ক ও দরিদ্র ১০ জনকে বয়স্ক ভাতা দেওয়া হয়। এই ১০ জনের মধ্যে অন্তত পাঁচজন হবেন মহিলা প্রতি মাসে ১৫০ টাকা করে বছরে ১৮০০ টাকা বয়স্ক ভাতা দেওয়া হয়। তবে ভাতা কারা পাবেন তা নির্ভর করে নিম্নক্ত যোগ্যতার উপরঃ

* সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

* সাধারণ অবস্থায় ৫৭ বছর বয়স না হলে কেউ ভাতা পাবেন না।

* কোনো ব্যক্তির মাসিক আয় ৩০০০ টাকার বেশি হলে তিনি বয়স্ক ভাতা পাওয়ার যোগ্য নন।

* কর্মঅক্ষম অথবা শারীরিকভাবে অক্ষম ব্যক্তি সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাবেন।

* শারীরিকভাবে অসুস্থ, মানসিকভাবে অপ্রকৃতিস্থ, প্রতিবন্ধী ও আংশিক কর্মঅক্ষম ব্যক্তিরা ক্রম অনুযায়ী অগ্রাধিকার পাবেন।

* শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধীরাও কর্মঅক্ষম বলে গণ্য হবেন।

* বয়স্ক মুক্তিযোদ্ধার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার।

* নিঃস্ব, উদ্বাস্তু ও ভূমিহীন ব্যক্তিদের ক্রমানুসারে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

* বিধবা, তালাকপ্রাপ্তা, বিপত্নীক, নিঃসন্তান, পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন ব্যক্তিদের ক্রম অনুযায়ী অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

* খাদ্য বাবদ যার সব আয়ের অর্থ ব্যয় হয়ে যায় এবং স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, বাসস্থান ও অন্যান্য খাতে ব্যয় করার জন্য কোনো অর্থ অবশিষ্ট থাকে না তাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

* ভূমিহীন প্রার্থীকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। যে ব্যক্তির বসতবাড়ি ছাড়া জমির পরিমাণ ০.৫ একর অথবা তার চেয়ে কম তিনি ভূমিহীন বলে গণ্য হবেন।

অত্র ইউপিতে নিম্মক্ত ভাতাদি চালু আছে।

১। বয়স্ক ভাতা

 ২। বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্রা ভাতা

 ৩। প্রতিবন্ধী ভাতা

 ৪। মুক্তিযোদ্ধা ভাতা

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter